সর্বশেষ

19/recent/ticker-posts

দিনটি গণতন্ত্রের, দিনটি আমেরিকার: জো বাইডেন

 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ। বিবিসির উত্তর আমেরিকা সম্পাদক জন সোপেল লিখেছেন, শপথ নেওয়ার পর জো বাইডেন ভাষণ দেওয়ার সময় মনে হচ্ছিল, তিনি যেন একটি দড়ির ওপর দিয়ে হাঁটছেন।তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ট্রাম্পিজমকে অস্বীকার করতে চাইছিলেন। 

তবে তিনি একবারও তার নাম উল্লেখ করেননি। তার বদলে তিনি যেন ট্রাম্পের সমর্থকদের কাছে পৌঁছাতে চাইছিলেন। তাদের বলছিলেন যে, তিনি সব আমেরিকানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।জো বাইডেন বলেছেন, ‘অভদ্র যুদ্ধের’ অবসান চান তিনি।কিন্তু বাইডেন যখন হোয়াইট হাউজে যাবেন তখন তাকে কী করতে হবে সেগুলো ভেবে দেখুন। 

তাকে দেশটির বিশাল এই সমস্যা মোকাবিলা করতে হবে যেখানে আমেরিকা তিক্তভাবে বিভক্ত হয়ে পড়েছে, যেখানে সত্য ও মিথ্যার মধ্যে প্রতিযোগিতা হচ্ছে।পুরো দেশকে তিনি একতাবদ্ধ করবেন কীভাবে?যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন জো বাইডেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান। 

স্থানীয় সময় বুধবার বেলা ১১টায় ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল ভবনে এই শপথবাক্য পাঠ করেন তিনি।শপথ নেওয়ার পর তিনি তার ভাষণে বলেন, এই দিনটি গণতন্ত্রের। 

দিনটি আমেরিকার। দিনটি ইতিহাস ও আশার দিন।তিনি বলেন, বিভিন্ন সময়ে আমেরিকাকে পরীক্ষা দিতে হয়েছে, তার দেশ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। আজকে আমরা গণতন্ত্রের বিজয় উদযাপন করছি।এই শপথ অনুষ্ঠানে সদ্য বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উপস্থিত ছিলেন না। 

যুক্তরাষ্ট্রের দেড়শ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো বিদায়ী প্রেসিডেন্ট নতুন প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ